প্রাচীন ইতিহাসে সমকামিতা

আজকালকার শিক্ষিতদের অনেকের মুখে বলতে শোনা যায় সমকামিতা একুশ শতকের কোন বিষয়, কলিযুগের পাপ। কিন্তু প্রাচীন ইতিহাসে সমকামিতার উদাহরন খুঁজে পেলাম। প্রাচীন গ্রীসের পুরাণ আর ধর্ম শাস্ত্রগুলোতে সমকামী স্পৃহার উল্লেখ দেখা যায়।সমকামীদের কামনার দেবি ছিল ভেনাস। শুক্র গ্রহের ইংরেজী নাম ভেনাস যা ভেনাস দেবীর নামে নামকরণ করা হয়। বাংলায় যাকে আমরা সুখ তারা বা সন্ধ্যাতারা নামে চিনি। আমি অবাক হয়ে খেয়াল করছি বাংলায় কেন এই গ্রহটার নাম রাখা হল শুক্র। শুক্র হল পুরুষের বীর্য। আর সমকামীরাই উপাসনা করে এই গ্রহের। একটা আদি মিলের সন্ধান দেখা যাচ্ছে। কিন্তু ওইতিহাসিক প্রমান না থাকায় আমি সেদিকে যাচ্ছি না। প্রিয়াপাস বলে সমকামীদের আরাধ্য আরেকজন দেবতা ছিল প্রাচীন গ্রিসে। এশিয়া মাইনর থেকে গাল্লিদের হাত ধরে সিবিলি পূজা পারস্যে সংক্রমিত হয়। আজকের ইরান হচ্ছে সেই পারস্য। তারপর ছড়িয়ে পড়ে পৃথিবীর নানা প্রান্তে।

ইসলামের আবির্ভাবের যুগে আরব সমাজে ব্যাপকভাবে সমকামিতার প্রচলন ছিল। সে যুগটা আসলেই অন্ধকার যুগ ছিল। তবে সমকামিতার থেকে শিশু কামিতার প্রচলন ছিল বেশী। এই আরবদের বশে আনতে কি ইসলামে হুরের পাশাপাশি গেলমানের কথা বলা হয়েছে?

আরব্য কবিদের কবিতায় সাকী শব্দটার যথেচ্ছ ব্যবহার হত। আমাদের জাতীয় কবি নজরুলের কবিতার সাকী ও সূরার ব্যবহার প্রথম শুনি। আমি ভাবতাম সাকী মানে মদ বা এলকোহল। কিন্তু সুরা মানেই হচ্ছে মদ। আর সাকী মানে হচ্ছে মদ পরিবেষণকারী সুন্দর রমনী, বালিকা ও বালক। সুন্দর লাস্যময় কোমল সেই বালক দের কাজ শুধু পান পাত্রে মদ ঢেলে দেওয়া ছিলনা। সে সাথে মালিকের জৈবিক চাহিদা পুরনে তাদের শয্যাসঙ্গী হতে হত।

তাহিতির বিভিন্ন জায়গায় এমন কিছু মূর্তি পাওয়া গেছে যেগুলোতে দুজন পুরুষের যৌনমিলন দেখা যায়। আনাতোলিয়া, গ্রিস, রোমের বিভিন্ন মন্দিরে সিবিলি ও ডাইওনিসস এর পূজা হত। সিবিলির পুরোহিতরা মেয়েদের মত লম্বা চুল রাখত। এদের নাম ছিল গাল্লি। ধারণা করা হয় গাল্লিদের মাঝে ব্যাপক সমকামিতার প্রচলন ছিল। গ্রীক, রোমান, চৈনিক, পাপুয়া নিউগিনী এবং উত্তর আমেরিকার সভ্যতাগুলোতে এরকম অনেক উদাহরন আছে যা সেই সময়ে সমকামিতার উপস্থিতি প্রমাণ করে।

হিন্দু শাস্ত্র পূরাণে পুরুষীনি বা তৃতীয় প্রকৃতি বলে উল্লেখ আছে যা দ্বারা উভকামিতা বা সমকামিতাকেই বোঝানো হয়েছে। গুজরাটের শংখলপুরে বহুচোরা মাতার যে প্রতিমা আছে সেটা দেখতে অনেকটা সিবিলির মত। তবে কি গাল্লিদের সিবিলি পূজা পারস্য হয়ে প্রাচীন ভারতে প্রবেশ করেছিল।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s